top of page

পেঁয়াজ - আলু - পোস্ত


ভোর হয়েছে | ঘুম ভেঙেছে | লেপের তলায় শুয়ে শুয়েই শীতের আমেজে ভরে রয়েছি , ভেবে নিয়েছি দুপুরে মেনুতে রাখবো কলাই ডাল আর ? আর সঙ্গে রাঁধবো সবার প্রিয় আলু পেঁয়াজ পোস্ত| খেতে বড়োই মুখরোচক , টেস্টি টেস্টি | বাঙালিদের দুপুরের মেনুতে কিন্তু প্রায়ই থাকে তাদের খুব খুব প্রিয় , কলাইয়ের ডাল আর আলু পোস্ত | যেন একে অপরের পরিপূরক | একটার কথা ভাবলেই ,অন্যটার ভাবনা মনে আসবেই আসবে |


কলাই ডাল তো স্বাদে অতুলনীয় বটেই ,কিন্তু আলু পেঁয়াজ পোস্তর কথা ভাবলেই যেন জিভে জল চলে আসে | সঙ্গে সঙ্গে যেন খিদেটাই পেয়ে যায় ,মনে হয় এখুনি খাই ,এখুনি খাই| যাক বাবা !একটা বিষয়ে নিশ্চন্ত | চিন্তা করার কিছুই নেই | আজ দুপুরের মেনুগুলো সবারই ভীষণ ভীষণ পছন্দের মেনু |

জলখাবারের পাট চুকলেই,আর দেরি না করে দুপুরের স্পেশাল মেনু আলু পেঁয়াজ পোস্ত রাঁধতে রান্নাঘরে ঢুকেই পড়লাম......


উপকরণ :-

  • আলু - ৬-৭ টি ( একটু বড়ো সাইজের ,খোসা ছাড়িয়ে ডুমো ডুমো করে কাটা )

  • পেঁয়াজ - ৭-৮ টি ( মাঝারি সাইজের , খোসা ছাড়িয়ে ডুমো ডুমো করে কাটা )

  • কঁচালংকা - ৫-৬ টি ( বাটা ,ঝাল কিন্তু নিজের নিজের পছন্দ মতো )

  • টমেটো - ১টা মাঝারি সাইজের (কুচানো)

  • পোস্ত - ৩০-৩৫ গ্রাম ( মিহি করে বাটা ,মিক্সি ব্যবহার করতে পারেন )

  • নুন - প্রয়োজনমতো

  • চিনি - সামান্য ( স্বাদ বাড়ানোর জন্য )

  • সর্ষের তেল - প্রয়োজনমতো

পদ্বতি :-



আগেই পোস্ত ভিজিয়ে রেখে মিহি করে বেটে রেখেছি | কাঁচালংকাও বেটে রেখেছি | আলু ,পেঁয়াজও কেটে রেখেছি | গ্যাসে কড়াই চাপিয়ে তেল দিলাম | তেল গরম হলে জলে ধোয়া আলু গুলো কড়াইতে দিলাম | আঁচ বাড়িয়ে কমিয়ে আলুগুলো হালকা রাঙা করে ভেজে তুলে রাখলাম |


কড়াইতে প্রয়োজনমতো আর একটু তেল দিয়ে ,দিলাম ডুমো ডুমো করে কাটা পেঁয়াজগুলো | আঁচ বাড়িয়ে কমিয়ে পেঁয়াজগুলো হালকা বাদামি করে ভেজে

নিলাম | আঁচ কমিয়ে দিলাম ভাজা আলুর টুকরোগুলো ,নুন চিনি আর কুচানো টমেটো | আঁচ বাড়িয়ে সমস্ত উপকরণ ভালোভাবে নাড়াচাড়া করে ,আঁচ কমিয়ে একটা ঢাকা দিয়ে রান্নাটা কিছুক্ষন হতে দিলাম |


আলু নরম হলেই ,দিলাম পোস্ত বাটা আর কাঁচালঙ্কা বাটা | আঁচ বাড়িয়ে সমস্ত উপকরণ ভালো করে নাড়তে লাগলাম | রান্নাটা একটু ভাজা ভাজা হতেই আর আলু পেঁয়াজ পোস্তর সুন্দর গন্ধ বার হতেই , রান্নার স্বাদ দেখে নিয়ে গ্যাস বন্ধ করলাম |


আজ আর খাবার টেবিলে আসার জন্য কাউকেই ডাকতে হয়নি | খাবার টেবিল পুরোপুরি ভর্তি | সবাই দেখি হাসি হাসি মুখে , খুশি খুশি মুখে আমার দিকেই তাকিয়ে | আমিও হাসি হাসি মুখেই খুব আনন্দের সঙ্গেই সব্বাইকে খাবার পরিবেশন করলাম | আজকের খাবার যেন বড়োই তৃপ্তির ,বড়োই স্বাদের আর ভীষণ আনন্দের | শান্তিতে ,খুশিতে খাওয়া দাওয়া শেষ হলো |মন আনন্দে ভর....পুর ...

আপনারাও আনন্দে থাকুন ,খুশিতে থাকুন ,ভালো থাকুন |

,

104 views0 comments

Comments


bottom of page