top of page

চিংড়ি - কুমড়ো - কাটোয়ার - ডাটা - চচ্চড়ি


গরমের দুপুরে ভাত ডালের সঙ্গে বা কেবল মাত্র গরম ভাতের সঙ্গে চিংড়ি কুমড়ো ডাটা চচ্চড়ি মেখে খেতে খুব ভালো লাগে | মোটের উপর, এই মেনু আমাদের কাছে খুব পছন্দের আর খুব স্বাদের | কুমড়ো তো অনেকেই পছন্দ করেন না | কিন্তু কুমড়ো এক অসাধারণ পুষ্টি সমৃদ্ধ সবজি | কুমড়ো খেলে শরীরের নানা ধরণের উপকার হয়ে | বিশেষ করে কুমড়ো এন্টিঅক্সিডেন্টের এক বিশাল উপকরণ | সেই জন্যে আমার বারবার অনুরোধ যারা পছন্দ করেন, তাদের তো বলছিই, কিন্তু যারা পছন্দ করেন না তারা একটু চেষ্টা করে কুমড়ো সমৃদ্ধ নানা পদ খেয়ে দেখুন | ভালো লাগবে, উপকারও হবে | ঠিক আছে, আসুন, রান্না করা যাক | উপকরণ :-



  • কুমড়ো - ৫০০ গ্রাম (খোসা ছাড়িয়ে লম্বা লোম একটু মোটা মোটা করে কাটা)

  • কাটোয়ার ডাটা - ৫০০ গ্রাম (ডাটা গুলো ভালো করে ছাড়িয়ে লম্বা লম্বা করে কাটা)

  • চাপড়া বা বাগদা চিংড়ি - ১ কাপ (ভালো করে ছাড়ানো)

  • পেঁয়াজ - ৩ থেকে ৪টি মাঝারি সাইজের (ভালো করে কুচানো)

  • কাঁচা লঙ্কা - ৩ থেকে ৪টি (অর্ধেক করে চেরা)

  • গোটা শুকনো লঙ্কা - ২ থেকে ৩টি

  • পাঁচ ফোড়ন - ১/৪ থেকে ১/২ চামচ

  • হলুদ - ১ থেকে ২ চামচ

  • নূন - প্রয়োজন মতো

  • চিনি - কয়েক দানা (রান্নায় সুন্দর রং আর সুন্দর স্বাদের জন্য)

  • সর্ষের তেল - ৩ থেকে ৪ চামচ


পদ্ধতি :-

প্রথমে খোসা ছাড়ানো চিংড়ি গুলো জলে ভালো করে ধুয়ে, জল ঝরিয়ে, নূন হলুদ মাখিয়ে রাখতে হবে | এবার কাটা কুমড়ো ও ডাটা গুলো ভালো করে ধুয়ে একটা থালার ওপর আলাদা আলাদা করে রাখতে হবে | গ্যাসে কড়াই গরম হলে, ১ চামচ তেল দিতে হবে | তেল গরম হলে, নূন-হলুদ মাখানো চিংড়ি গুলো সাঁতলে নিয়ে পাত্রে রেখে দিতে হবে | কড়াই পরিষ্কার করে গ্যাসে চাপিয়ে গরম করতে হবে | কড়াই চাপিয়ে দিতে হবে ২ থেকে ৩ চামচ তেল | তেল গরম হলে, আঁচ কমিয়ে দিতে হবে -------- পাঁচ ফোড়ন, ফাটানো শুকনো লঙ্কা ও পেঁয়াজ কুচি গুলো | আঁচ বাড়িয়ে কমিয়ে পেঁয়াজ ভাজতে হবে | ভাজা পেঁয়াজ একটু নরম হয়ে এলে, তাতে দিতে হবে ---- কুমড়োর টুকরো গুলো | কুমড়ো আর পেঁয়াজ কয়েকবার নেড়ে নিয়ে দিতে হবে ডাটা গুলো | আঁচ কমিয়ে দিতে হবে, হলুদ, নূন আর কয়েক দানা চিনি | আবার আঁচ বাড়িয়ে কয়েকবার নেড়ে নিয়ে দিতে হবে সাঁতলানো চিংড়ি গুলো আর বেশি আঁচে সমস্ত উপকরণ গুলো নেড়ে নিতে হবে | এবার দিতে হবে কয়েক টুকরো কাঁচা লঙ্কা | আঁচ কমিয়ে একটা ঢাকা দিয়ে কিছুক্ষন রাখতে হবে | ঢাকা খুলে রান্নাটি আবার বেশি আঁচে ভালো করে নাড়তে হবে | চিংড়ি ডাটা আর কুমড়ো মাখো মাখো হলেই আর রান্নায় নূন-ঝাল-মিষ্টির তাক ঠিকঠাক হলেই গ্যাস বন্ধ করতে হবে | রান্না তৈরি -------------- এবার গরম গরম ডালে-ভাতে রান্নাটি খেয়ে দেখুন | নিশ্চয়ই ভালো লাগবে | সব খাবারই এনজয় করে খান | দেখবেন, সত্যিই খুব ভালো লাগবে | ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন, আনন্দে থাকুন |

28 views0 comments

Comments


bottom of page