top of page

দহি - কাজুতে - মুখরোচক - চিকেন


শীতের মিষ্টি মিষ্টি আমেজে কয়েকটা দিন বেশ ভালোই কাটছিলো | ভালো ভালো খাওয়া দাওয়া আর মাঝে মধ্যে একটু এদিক ওদিক ঘুরে আসা , পিকনিকের মজাতে দিনগুলো খুব আনন্দে কাটছিলো | কাল হঠাৎ খু .....ব গুমোট গুমোট লাগছিলো | মনে হচ্ছিলো ,ঠান্ডা চলে যাবে নাকি ? না ...না ...মনে হয় বৃষ্টি হবে | খবরে ও তাই বলছে | তবে যাই বলি না কেনো....... শীতকালের বৃষ্টি এক ....দমই ভালো লাগে না |


শীতকালের সকাল হবে রোদ- ভরা ঝলমলে সকাল | সক্কলের খুবই পছন্দের সকাল | তার বদলে বৃষ্টি .....? না ..না ..না পসন্দ ! তবে খবর সত্যি করে ,আজকের সকাল একেবারে মেঘে ঢাকা সকাল | কোথাও সূর্য্যের আলোর কোনো আভাসই নেই | মাঝে মাঝে দু - এক টা বৃষ্টির ফোঁটা | রাস্তা অল্প ভেজা ভেজা | তবে ওয়েদার দেখে মনে হচ্ছে ,আজ সারাদিনে ভালোই বৃষ্টি হবে..........................................

আর ভালো বৃষ্টি পড়লে ....শীত ও তো একটু বেশি বেশি পরবেই |


মেঘকালো সকালে লক্ষ্য করছি ,বাড়ির সবারই মনগুলো কেমন ভার ভার ! নাঃ ! রান্নাতেই করবো মুশকিল আসান !!একটা কিছু মজাদার রান্না করতেই হবে | সারাদিন বৃষ্টির পর , রাতে ঠান্ডা যখন একটু জমে উঠবে ,তখনই ডিনার টেবিলে আনতে হবে পিকনিকের মেজাজ | রাতে সবার পাতে , থাকবে গরম গরম রুটি আর সঙ্গে খুবই সুস্বাদু ......দই আর কাজুতে চিকেনের এক অসাধারণ মেনু | সুন্দর মুখরোচক এক মেনু ,যা রুটি - পরোটা - রুমালি রুটি - তন্দুর রুটি - নান - কুলচা .......যার সঙ্গেই খাওয়া হউক না কেন .....জমে উঠবেই |


সকালেই রাতের চিকেনের মেনু তৈরি করার সব উপকরণই যোগাড় করে রাখলাম | চিকেন ভালো করে

ধুয়ে পরিষ্কার করে একটা পাত্রে নিয়ে দই ,গোলমরিচ আর অল্প নুন দিয়ে মেখে ঢাকা দিয়ে ,ম্যারিনেট করতে ফ্রিজে তুলে রাখলাম | ঠিক করলাম ,সন্ধ্যায় চা - টা খাওয়া হয়ে গেলে ,দহি - কাজুতে চিকেনের মুখরোচক মেনুটা তৈরি করে ফেলবো | তারপর রাতের ডিনার টেবিলে সব্বাইয়ের পাতে পরবে গরম গরম রুটির সঙ্গে মুখরোচক চিকেনের মেনু |


চিকেন তো সব্বাই ভীষণ ভীষণ পছন্দ করেই, তার উপর প্রোটিনে ভরপুর চিকেন শরীরে ইমিউনিটি বাড়াতে খুবই উপযোগী | তাই চিকেনের মেনু মানেই ,একদম ঠিকঠাক মেনু | তাহলে আজ শীতের রাতে আমাদের বাড়িতে ডিনার টেবিলে জমিয়ে হবে সবাই মিলে পিকনিক ..........



উপকরণ :-


  • চিকেন - ১.৫ কেজি ( নেট ওজন ) ,টুকরো টুকরো করে কাটা আর পরিষ্কর করা |

  • দই - ২০০ গ্রাম

  • কাজু বাদাম - ১০০ গ্রামের মতো

  • কিশমিশ - ৫০ গ্রামের মতো

  • গোটা গোলমরিচ - ২-৩ চামচ

  • শা - জিরে - চা চামচের ১ চামচ

  • ছোট এলাচ - ৬-৭ টি

  • লবঙ্গ - ৮- ১০ টি

  • দারচিনি - ছোট ছোট ৩-৪ টুকরো

  • গোটা শুকনোলঙ্কা - ৮ -১০ টি ( একটু করে ফাটানো )

  • গোটা তেজপাতা - ৩-৪ টি

  • জায়ফল - জয়িত্রী গুঁড়ো - চা চামচের ১/২ চামচ

  • বাটার - ২৫-৫০ গ্রামের মতো ( ইচ্ছামতো )

  • পেঁয়াজ - ৪টি মাঝারি সাইজের ,কুচানো

  • টমেটো - ১টি মাঝারি সাইজের ,কুচানো

  • আদা - ইঞ্চি খানেক ,বাটা

  • রসুন - ৮-১০ কোয়া ( খোসা ছাড়িয়ে বাটা )

  • নুন - প্রয়োজনমতো

  • চিনি - অবশ্যই লাগবে ,প্রয়োজনমতো

  • সাদা তেল - প্রয়োজনমতো


পদ্ধতি :-


আজকে আমার রান্নাটা যতবেশি মুখরোচক ,রান্না করাটা কিন্তু ততখানিই সহজ | যথারীতি বিকালে চা - টা খাওয়া শেষ করেই রান্নাঘরে ঢুকে পড়লাম ,মুখরোচক দহি - কাজুতে চিকেন রান্না করতে | বিকালে চা তৈরির আগেই ম্যারিনেট করা চিকেনের পাত্রটা ফ্রিজ থেকে বার করে রেখেছিলাম ,নরম্যাল তাপমাত্রায় আনার জন্য |


রান্না শুরুর প্রথমেই জায়ফল - জয়িত্রী গুঁড়ো করে নিলাম | কাজু মিহি করে বেটে রাখলাম | আদা রসুন ও বেটে রাখলাম | গ্যাসে কড়াই চাপিয়ে প্রয়োজনমতো তেল দিলাম | তেল গরম হলে আঁচ কমিয়ে দিলাম শা - জিরে ,ছোট এলাচ ,লবঙ্গ ,দারচিনি আর গোটা -একটু করে ফাটানো শুকনো লঙ্কাগুলো |এবার আঁচ বাড়িয়ে দিলাম কুচানো

পেঁয়াজ আর তেজপাতা | আঁচ বাড়িয়ে কমিয়ে পেঁয়াজ নরম নরম করে মজিয়ে নিলাম | দিলাম আদা রসুন বাটা | আঁচ বাড়িয়ে সমস্ত উপকরণ ভালো করে নাড়াচাড়া করে নিয়ে দিলাম ম্যারিনেট করা চিকেন , টমেটোর কুচানো টুকরোগুলো আর কিশকিস গুলো |


আঁচ বাড়িয়ে কড়াইয়ের সমস্ত উপকরণ ভালো করে কষতে লাগলাম |কড়াইতে কষা চিকেন থেকে প্রচুর পরিমানে জল বেরিয়েছে | কড়াইতে দিলাম প্রয়োজনমতো চিনি ও আর একটু নুন | আবারো বেশি আঁচে কড়াইয়ের সমস্ত উপকরণ নাড়তে লাগলাম | কষতে কষতে কড়াইয়ের জল কমে আসতেই , রসার পরিমান ভেবে কড়াইতে দিলাম প্রয়োজনমতো কুসুম কুসুম গরম জল | কড়াইয়ের সমস্ত উপকরণ টগবগ করে ফুটে উঠতেই আঁচ কমিয়ে ,একটা ঢাকা দিয়ে দই য়ের মধ্যে চিকেন মজতে দিলাম |


খানিক্ষন বাদে ঢাকা খুলে দেখলাম ,চিকেন বেশ নরম হয়ে এসেছে | এবার কড়াইতে কাজুবাটা দিয়ে আঁচ বাড়িয়ে দিলাম | একটু নাড়াচাড়া করে নিয়ে রান্নার স্বাদ চেখে দেখলাম | দিলাম অল্প জায়ফল - জয়িত্রীর গুঁড়ো | আহা - হা - হা বড়োই ভালো | অসাধারণ এক গন্ধ ! রসার পরিমান ঠিক করে নিয়ে বাটারের টুকরো কড়াইতে দিয়ে ,গ্যাস বন্ধ করে রান্নায় ঢাকা দিলাম |

এদিকে সত্যি সত্যিই রাতে ঠান্ডা বেশ জাঁকিয়ে পড়েছে | ঠান্ডা টা বেশ ভালো ও লাগছে | ব্যালকনিতে গিয়ে দেখি ,বৃষ্টি এখন নেই ,কিন্তু রাস্তাঘাট বেশ ভেজা ভেজা | চারিদিক আলোতে ঝলমল কিন্তু রাস্তা পুরো ফাঁকা | বেশির ভাগ বাড়িতেই আলো নেভানো | জোরদার রয়েছে উত্তরে হাওয়া | বাঃ ! বাঃ ! .......মনে হচ্ছে , রাতের ডিনার টেবিলে আমাদের পিকনিকটা বেশ জমে উঠবে | হলো ও তাই | অনেকে যখন শীতের দাপটে লেপের তলায় ......আমাদের খাওয়ার টেবিলে তখন মহা - আনন্দে জমিয়ে চলছে রাতের খাওয়া দাওয়া | গরম গরম রুটি আর দহি - কাজুতে - মুখরোচক - চিকেনের মেনুতে সবাই মুগ্ধ | সুন্দর স্বাদে মনপ্রাণ ভরপুর | সবাই খুশি ,খুবই খুশি আর দারুন দারুন খুশি .........মোট -কথা খুশিতে ভরপুর |


একবার আমার এই সহজ মেনুটা রান্না করে খেয়ে দেখুন না ! খুব খু -ব ভালো লাগবে, ভালো লাগবেই | ভালো থাকুন ,সুস্থ থাকুন ,অনেক আনন্দে থাকুন |









22 views0 comments

Comments


bottom of page