top of page

ডাটা আলু পোস্ত



ডাটা আলু পোস্ত গরম ভাতে প্রথম পাতে দারুন | এই গরমে দারুন মেনু | খেতেও খুব স্বাদের লাগে | আর শরীরের পক্ষে তো ভালোই | গ্রামে গঞ্জে, বাড়িতে বাড়িতে এই দেশি ডাটা গুলো দেখতে পাওয়া যায় | শাক সমেত এই ডাটা গুলো তুলে নিয়ে শাক ভাজাও খাওয়া যায় আবার ডাটা চচ্চড়িও খাওয়া যায় |


বাজারে গেলে গ্রাম থেকে শাক সবজি বিক্রি করতে যারা আসেন, তাদের কাছেই কিন্তু এই দেশি ডাটা গুলো পাওয়া যায় | আজ আমার বাজারে রয়েছে কচি কচি পাতা সমেত এই ডাটা ---- ভীষণ টাটকা আর সবুজ | দেখলেই যেন মন ভরে যায় |


ভাবলাম একটু রসা রসা করে ডাটা আলু পোস্ত রাঁধবো | গরম ভাতে খুবই ভালো লাগবে | ভাবতে ভাবতে ১/২ কাপ মতো পোস্ত ভিজিয়ে দিলাম | ডাটা ভালো করে ছাড়িয়ে নিয়ে লম্বা লম্বা করে কেটে রাখলাম | ৩,৮টি মাঝারি সাইজের আলুও খোসা ছাড়িয়ে সরু সরু লম্বা লম্বা করে কেটে নিলাম |


এইবার রান্না শুরু করবো............


উপকরণ :-

  • খোসা ছাড়ানো লম্বা লম্বা করে কাটা ডাটা - ২ থেকে ৩ কাপ মতো

  • খোসা ছাড়ানো লম্বা লম্বা সরু সরু করে কাটা আলু - ২ কাপ মতো

  • কাঁচা লঙ্কা গোটা - ২টি

  • কাঁচা লঙ্কা অর্ধেক করে চেরা - ৩টি

  • পাঁচ ফোড়ন - ১/২ চামচ

  • শুকনো লঙ্কা - ১টি বা ২টি

  • হলুদ - ১ চিমটে

  • নূন - প্রয়োজন মতো

  • চিনি - কয়েকদানা

  • সর্ষের তেল - প্রয়োজন মতো

পদ্ধতি :-


মিক্সিতে জল ঝরিয়ে পোস্ত আর ২টি কাঁচা লঙ্কা দিয়ে ভালো করে বেটে নিলাম | গ্যাসে কড়াই গরম করে ২-৩ চামচ তেল দিলাম | তেল গরম হলে, দিলাম পাঁচ ফোড়ন, শুকনো লঙ্কা আর জলে ধোয়া ডাটা ও আলু গুলো |

বেশি আঁচে ভালো করে নাড়তে লাগলাম | তরকারি থেকে বেরোনো জলের পরিমাণ কমে আসতেই, দিল এক চিমটে হলুদ, নূন আর কয়েকদানা চিনি | এবার কয়েকবার নেড়েচেড়ে নিয়ে একটা ঢাকা দিয়ে আঁচ কমিয়ে রান্নাটা হতে দিলাম |


আলু আর ডাটা সেদ্ধ হয়ে গেলে, আঁচ বাড়িয়ে পোস্ত বাটা একটু জল দিয়ে গুলি নিয়ে কড়াইতে দিয়ে দিলাম | বেশ কয়েকবার ফোটানোর পর আলু-ডাটা-পোস্ত একটু রসা রসা হয়ে এলেই রান্নার স্বাদ দেখে গ্যাস বন্ধ করে দিলাম |


দুপুরে খাবার টেবিলে প্রথম পাতেই গরম ভাতের সঙ্গে ডাটা আলুর রসা রসা পোস্ত ------- মুখ স্বাদে ভরিয়ে দিলো | শুধুই মনে হলো ভীষণ ভালো.....ভীষণ ভালো.........


সবাই ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন, আনন্দে থাকুন |

9 views0 comments

Comentarios


bottom of page