top of page

গন্ধরাজ - চিকেন


গন্ধরাজ - চিকেন !!! খুবই টেস্টি টেস্টি স্পেশাল এক মেনু | পরোটা দিয়ে বা বাসন্তী পোলাও দিয়ে দারুন জমে যায় | তবে কিন্তু রুটি বা গরম ভাতের পাতও কম জমিয়ে দেয় না .........| ছোট - বড়ো সবারই খুব প্রিয় একটা মেনু | ভীষণই মুখরোচক আর সহজেই হজম ও হয়ে যায় | জিভে মজাদার স্বাদ আনতে '' গন্ধরাজ - চিকেনের '' জুড়ি মেলা ভার |


প্রোটিনে ঠাসা চিকেন তো আমিষভোজীদের ঘরে ঘরে সবারই খুব পছন্দের এক উপকরণ | আর এই প্রিয় খাদ্য উপকরণটি সবার স্বাস্থ্যের জন্যও তো ভীষণ ভীষণই উপকারী | আর তাইতো ঘরে বাইরে ,হোটেল রেঁস্তোরায় চিকেন প্রেমিকদের জন্য প্রতিদিন তৈরি হয়ে চলেছে চিকেনের কতশত টেস্টি টেস্টি মেনু | চিকেন সহজপাচ্য বলে , দুর্বল শরীরে সবলতা বাড়াতে ; মুখরোচক বলে ,মুখের স্বাদে চটক আনতে ; আর প্রোটিনের ভান্ডার বলে , হাড় - পেশীর গঠন মজবুত করতে আমাদের, মানে আমিষভোজীদের খাবার পাতে ঘনঘন চিকেন চা .........ই চাই |


আবার আমাদের সবার প্রিয় গন্ধরাজ - লেবুর সত্যিই কি কোনো তুলনা আছে ? একটুকরো গন্ধরাজ লেবু সবার মাঝে পৌঁছে গেলেই , এর সুন্দর এরোমায় সবার মনে এক অনাবিল ভালোলাগার আর স্বস্তির আনন্দে ভরে যায় | গরম গরম ভাতের পাতে এক টুকরো গন্ধরাজ লেবু ........আহা - হা ....ভাবলেই জিভে জল .......| ভিটামিন সি - তে ভরপুর এই গন্ধরাজ লেবু প্রতিদিন আমাদের ভাতের পাতে .........তো আমাদের সর্দি - কাশি - হাঁচি সহজে কাছে আস্তে ভয় পায় ,ধীরে ধীরে অনেক অ..........নেক দূরে পালিয়ে ও যায় | ত্বকেও থাকেনা কোনো জ্বালা যন্ত্রনা , ধীরে ধীরে চুল হয়ে ওঠে রেশমের মতো ঝলমলে |


আর এই সব নানা কারণের কথা ভেবেই , এই অসহ্য গরমে সবার মনে আনন্দ আনতে আর ভাতের পাত জমিয়ে দিতে , আমার খাবার টেবিলে এখন রোজ রো......জ থাকছে গন্ধরাজ লেবু | তাই তো রোজ বাজারের থলিতেও .... গন্ধরাজ লেবু | আজ ও থলিতে অনেক কিছুর সঙ্গে রয়েছে পাতা সমেত কয়েকটা গন্ধরাজ লেবু | রয়েছে আলু ,পটল ,পেঁয়াজ রসুন ,আদা ,টমেটো ,কাঁচালংকার সঙ্গে খানিকটা চিকেন | আবার টক দইয়ের একটাভার ও দেখতে পাচ্ছি | ..........হঠাৎ ই মনে হতে লাগলো , খুব ভুল না ভাবলে ...গন্ধরাজ চিকেন রান্নার সব উপকরণ ই যেনো আমার হাতের কাছে |

বাঃ! বাঃ ! দারুন তো !! এই গরমে খাবার টেবিল জমিয়ে দিতে , অবশ্যই এক অসাধারণ মেনু ....'' এই গন্ধরাজ চিকেন ''| আর নিজের এই সুন্দর ভাবনাতে আমি কিন্তু , নিজেই খুশিতে ডগমগ | আসলে ,আমার ও যে বড়োই প্রিয় ,চটপটে স্বাদে ভরা এই ''গন্ধরাজ চিকেন '' |আহা....আহা .........আ....হা ....হা .........


তাই আর দেরি নয় ,শুরু করে দিলাম ''গন্ধরাজ চিকেনের '' প্রিপারেশন | চিকেন ধুয়ে ,জল ঝরিয়ে নিয়ে একটা পাত্রে নিলাম | একটা গন্দরাজ লেবু ধুয়ে নিয়ে চাকা চাকা করে কেটে রাখলাম |

আর একটা লেবু ধুয়ে নিয়ে ,গ্রেটারে লেবুর উপরের সবুজ অংশটা কুড়িয়ে রাখলাম |বাকি লেবুটা টুকরো টুকরো করে কেটে নিলাম | মিক্সিতে পরিষ্কার করে কেটে রাখা পেঁয়াজ ,আদা , রসুন আর কাঁচালঙ্কা নিয়ে মিহি করে বেটে ফেললাম | গন্ধরাজ লেবুর পাতাগুলো ও ভালো করে ধুয়ে রাখলাম |


এবার চিকেনের পাত্রটার মধ্যে দিলাম ৩-৪ চামচ জল ঝরানো টক দই , পেঁয়াজ,রসুন , আদা আর কাঁচালংকার বাটা মিশ্রণটার অর্ধেকটা , ১-১.৫ চামচ মতো কাশ্মীরি লাল লঙ্কাগুঁড়ো ,১- ১.৫ চামচ মতো জিরেগুঁড়ো , ১-২ চামচ গোটা গোলমরিচ , কুড়ানো গন্ধরাজ লেবুর সবুজ অংশ , গন্ধরাজ লেবুর পাতাগুলো , কাটা গন্ধরাজ লেবুগুলো চিপে নিয়ে ...লেবুর রস ( ২-৩ চামচ ) , প্রয়োজনমতো চিনি ( স্পেশাল স্বাদ আর সুন্দর রঙের জন্য ) , প্রয়োজনমতো নুন | সমস্ত ভালোমতো মেখে নিয়ে ,একটা ঢাকা দিয়ে রাখলাম ,খানিকক্ষণ ম্যারিনেট হওয়ার জন্য |


উপকরণ :-


  • চিকেন - নেট ১.৫ কিলো ,টুকরো টুকরো করে কাটা

  • টক দই - জলঝরানো ,৩-৪ চামচ

  • গন্ধরাজ লেবু - ২ টো , একটা গোল গোল করে কাটা , একটা থেকে লেবুর রস আর লেবুর কুড়ানো সবুজ খোসা

  • গন্ধরাজ লেবুর পাতা - কয়েকটা

  • পেঁয়াজ - ৫-৬টি মাঝারি সাইজের,২টো বা ৩টে বাটা ,৩টে কুচানো

  • রসুন - ১টা মাঝারি সাইজের ,কোয়া গুলো ছাড়িয়ে নিয়ে বেটে রাখা

  • কাঁচালঙ্কা- ৬-৭ টা , ২ - ৩ টা বাটা ,বাকি গুলো রান্নায় গোটা গোটা

  • আদা - ২ ইঞ্চি মতো ,বেটে রাখা

  • হলুদগুঁড়ো - ১/২ চামচ মতো ( ইচ্ছে না হলে ,দেবেন না )

  • জিরেগুঁড়ো - ১/২ চামচ মতো

  • গোটা গোলমরিচ - ১-২ চামচ

  • লাল লঙ্কাগুঁড়ো - ২-৩ চামচ

  • কাশ্মীরি লঙ্কাগুঁড়ো - ১- ১.৫ চামচ

  • তেজপাতা - ২-৩টে

  • দারচিনি - ২-৩ টুকরো

  • লবঙ্গ - ৪-৫ টা

  • ছোট এলাচ - ৫-৬ টি

  • গোটা শুকনো লঙ্কা - ৩-৪টি ( একটু করে ফাটানো )

  • চিনি - প্রয়োজনমতো

  • নুন প্রয়োজনমতো

  • সাদা তেল - প্রয়োজনমতো


পদ্ধতি :-


প্রায় ১ ঘন্টা মতো চিকেন ম্যারিনেট হয়ে যাওয়ার পর ,রান্না শুরু করলাম | গ্যাসে কড়াই চাপিয়ে প্রয়োজনমতো তেল দিলাম | তেল গরম হয়ে যেতেই আঁচ কমিয়ে তেলে দিলাম গোটা শুকনোলঙ্কা ,ছোট এলাচ .লবঙ্গ ,দারচিনি আর তেজপাতা | দিলাম কুচানো পেঁয়াজগুলো | আঁচ বাড়িয়ে কমিয়ে পেঁয়াজ ভাজতে লাগলাম | পেঁয়াজ নরম হয়ে ,পেঁয়াজ ভাজা থেকে সুন্দর গন্ধ বার হতেই আঁচ কমিয়ে কড়াইতে দিলাম ,মিক্সিতে বেটে রাখা পেঁয়াজ ,রসুন আদা আর কাঁচালংকার অর্ধেকটা | আঁচ বাড়িয়ে কমিয়ে ভালো করে নাড়তে লাগলাম | দিয়ে দিলাম এক চিমটে হলুদগুঁড়ো ( ইচ্ছে না হলে নাও দিতে পারেন )আর ম্যারিনেট করে রাখা চিকেন |


আঁচ বাড়িয়ে সমস্ত ভালো করে কষতে লাগলাম | দিলাম একটু লাল লঙ্কাগুঁড়ো | আবার ভালো করে নাড়াচাড়া করতে লাগলাম | চিকেনের রং একটু পাল্টে যেতেই, আঁচ কমিয়ে একটা ঢাকা দিয়ে চিকেন মজতে দিলাম | মাঝে মাঝে ঢাকা খুলে চিকেন নেড়ে দিতে লাগলাম | চিকেন থেকে প্রচুর পরিমানে জল বেরিয়ে ,চিকেন সেদ্ধ হতে লাগলো |

সুন্দর এক লোভনীয় গন্ধে চারিদিক ভরে উঠেছে | মন ভালো করা গন্ধ | হঠাৎই মনে হলো ,এই সুন্দর গন্ধে বাড়ির সবার মুখগুলো এখন কেমন দেখতে হয়েছে ?....খুব দেখতে ইচ্ছে করছে !!.........আর ..... চোখেও পড়লো সব মুখগুলোই যেনো তাদের প্রিয় খাদ্য মেনুর কথা ভেবে .........এক অনাবিল আনন্দে ,খুশিতে ঝলমল ঝলমল করছে | ভালো লাগলো | দেখে খুবই ভালো লাগলো |


আবার পৌঁছে গেলাম আমার প্রিয় রান্নাঘরে | ঢাকা খুলে চিকেন সু-সিদ্ধ হয়ে গেছে মনে হতেই , রান্নার স্বাদ চেখে নিলাম | সত্যিই দারুন রান্না করে ফেলেছি |

এবার রান্নার ঢাকা খুলে ,কয়েকটা গোটা কাঁচালঙ্কা আর গোল গোল করে কেটে রাখা গন্ধরাজ লেবুর টুকরোগুলো কড়াইতে দিয়ে ,আবার অল্প নেড়েচেড়ে নিয়ে গ্যাস বন্ধ করে ,একটা ঢাকা দিয়ে অপেক্ষায় রইলাম দুপুরের টেবিলে পৌঁছানোর | অপেক্ষা !.......অপেক্ষা !!......আর ..অপেক্ষা !!!.........


অবশেষে হলো অপেক্ষার অবসান | আমরা সব্বাই খাওয়ার টেবিলে | নানা খাদ্য মেনুর সঙ্গে জমিয়ে খেলাম আমাদের অতি....অতিপ্রিয় ''গন্ধরাজ - চিকেন ''| দারুন ! দারুন লাগলো | স্বাদের আনন্দে মন ভরে গেলো | খুশি ,খুশি আর চারিদিকে যেনো শুধুই খুশির হাওয়া ....................


সব্বাই অনেক অনেক খুশিতে থাকুন | আনন্দে ভরে ভরে থাকুন | আর থাকুন সুস্থ অনেক সুস্থ |






Kommentare


bottom of page