top of page

মোচা - চিংড়ি



মোচা --- কলা গাছের ফুল | যে ফুল থেকে ফলে কাদি কাদি কলা | কলা খুবই উপকারী ফল সবার জন্য

| তাই কলার চাহিদাও খুব বেশি | কিন্তু কলার ফুল মোচাও অসম্ভব উপকারী | রক্তাল্পলতা নিয়ান্ত্রনে, রক্তে আইরনেই সমতা বজায় রাখতে, হাড়ের গঠন মজবুত করতে, রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে, হার্ট ভালো রাখতে, রক্তে শর্করার মাত্রা ঠিক রাখতে মোচার যেন কোনো বিকল্পই নেই | স্বাদে গুনেও অসাধারণ |


বাঙালির ঘরে ঘরে মোচার নানা মেনু রান্না হয়েই থাকে | আর প্রত্যেক মেনুই সবার পছন্দের | মোচার নিরামিষ মেনু যেমন মুখরোচক, আমিষ মেনুও তেমনি অসাধারণ |


আমি আজকে রান্না করছি মোচা চিংড়ি | অনেকদিন ধরে ভাবছি মোচার একটা মেনু রান্না করতে হবে | শরীরের পক্ষেও উপকারী আর খেতেও বড় ভালো | তাই আজ মোচা আনিয়েই নিয়েছি | সঙ্গে রয়েছে চাপড়া চিংড়ি | সব উপকরণ যখন হাতের কাছেই, তখন চিংড়ি দিয়ে মোচাটা রেঁধেই ফেলি |


উপকরণ :-

  • মোচা - ১টি মাঝারি সাইজের

  • আলু - ৪,৫টি মাঝারি সাইজের (ডুমো ডুমো করে কাটা)

  • চাপড়া চিংড়ি - ২৫০ গ্রাম

  • টমেটো - ১টি মাঝারি সাইজের (৬ টুকরো করে কাটা)

  • ছোট এলাচ - ৫টি

  • গোটা জিরে - ১/২ চামচ

  • গোটা শুকনো লঙ্কা - ২টি

  • তেজ পাতা - ২,৩টি

  • কাঁচা লঙ্কা - ৪,৫টি (মাঝামাঝি ২ টুকরো করে কাটা)

  • হলুদ - ২ থেকে ৩ চামচ

  • জিরে গুঁড়ো - ৩ থেকে ৪ চামচ

  • লঙ্কা গুঁড়ো - ১ থেকে ১.৫ চামচ

  • গরম মশলা - ১/২ চামচ

  • ঘি - ১/২ চামচ থেকে ১ চামচ

  • নূন - প্রয়োজন মতো

  • চিনি - প্রয়োজন মতো

  • সর্ষের তেল - প্রয়োজন মতো

পদ্ধতি :-


মোচা ছাড়িয়ে ছোট ছোট টুকরো করে কেটে একটা পাত্রে হলুদ জলে ভিজিয়ে দিলাম | চিংড়ি মাছ গুলো ভালো করে বেছে নিয়ে, জলে ধুয়ে, নূন হলুদ মাখিয়ে রাখলাম | কিছুক্ষন বাদে প্রেসার কুকারে জলে ভেজানো মোচা গুলো দিয়ে একটু জল দিলাম | প্রেসার কুকার বন্ধ করে গ্যাসে চাপালাম | ৬,৭টি সিটি দিতে প্রেসার কুকার নামিয়ে রেখে দিলাম |


গ্যাসে কড়াই চাপালাম | কড়াই গরম হলে প্রয়োজন মতো তেল দিলাম | আর তেল গরম হলে, ডুমো ডুমো আলু গুলো কড়াইতে ছেড়ে দিলাম | আলু রাঙা করে ভেজে তুলে রাখলাম |


কড়াইতে থাকা সামান্য তেলেই চিংড়ি মাছ গুলো সাঁতলে তুলে নিলাম | এবার কড়াই পরিষ্কার করে প্রয়োজন মতো তেল দিলাম | তেল গরম হলে দিলাম, এলাচ, গোটা জিরে, গোটা শুকনো লঙ্কা, ভাজা আলু আর ২,৩টি তেজ পাতা | ভালো করে একটু নেড়ে নিয়ে, দিলাম প্রেসার কুকার থেকে জল ঝরানো মোচা সেদ্ধ |


আঁচ বাড়িয়ে সমস্ত উপকরণ বেশ কয়েকবার নেড়েচেড়ে, দিলাম হলুদ, নূন, চিনি (প্রয়োজন মতো লাগবেই), জিরে গুঁড়ো, সামান্য লঙ্কা গুঁড়ো আর সাঁতলানো চিংড়ি মাছ গুলো | আঁচ বাড়িয়ে ভালো করে কষতে লাগলাম |


মশলার ভাজা গন্ধ বেরোলেই আঁচ কমিয়ে রান্নায় সামান্য জল ছিটিয়ে, একটা ঢাকা দিয়ে রান্না হতে দিলাম | আলু সেদ্ধ হয়ে গেলে, আঁচ বাড়িয়ে আবার নাড়তে লাগলাম | সমস্ত উপকরণ থেকে সুন্দর গন্ধ বেরোলে রান্নার স্বাদ দেখে নিয়ে, দিলাম গরম মশলা, ঘি আর অর্ধেক করে কাটা কাঁচা লঙ্কা গুলো |


এবার আঁচ বাড়িয়ে কমিয়ে বেশ কয়েকবার নাড়াচাড়া করে গ্যাস বন্ধ করে দিলাম | স্বাদে গন্ধে মোচা চিংড়ি যে কি অপূর্ব তা আমরা সবাই খাবার পাতে বেশ ভালো ভাবেই বুঝতে পারলাম | গরম ভাতের সঙ্গে মোচা চিংড়ির স্বাদ বলে বোঝানো যাবেই না | বড়ই সুন্দর, বড়ই সুন্দর !


আপনিও রান্না করুন আর খেয়ে দেখুন, ভালো লাগবে | ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন, আনন্দে থাকুন |


81 views0 comments

Yorumlar


bottom of page