top of page

মুগডাল - ফোরণে - লাউ - ঘন্ট


খুব গরম !রাতে ভালো ঘুম হওয়াই মুশকিল। সকাল সকাল সবারই ঘুম ভেঙেছে। যে যার নিজের নিজের কাজে ব্যস্ত হয়ে গেছে। চায়ের পাট শেষ করে জলখাবার তৈরিতে মন দিয়েছি। হঠাৎ খেয়াল করলাম ,আজকের বাজারও এসে পৌঁছে গেছে রান্নাঘরে। বাঃ! ভালোই হলো।এই গরমে একটু তাড়াতাড়িই রান্নাবান্না শেষ করতে পারবো।


বাজারের থলি খুলে প্রথমেই চোখে পড়লো, ছোট মতন একটা কচি গোল লাউ। গরমে এই সব্জিটা কিন্তু খুবই উপকারী।কারণ লাউ তে প্রচুর পরিমানে জল থাকে।আর তাছাড়া লাউ প্রচুর ঔষুধিগুনেও ভরপুর। হার্ট ,লিভার ,ত্বক ভালো রাখতে ,পেট ঠান্ডা রাখতে লাউ তুলনাহীন। খুব সহজে হজমও হয়।তাই আমাদের প্রত্যেকের খাদ্য লিস্টে মাঝে মাঝে লাউয়ের কোনো না কোনো মেনু রাখাই উচিত।


এখন চিন্তা কিভাবে লাউ রান্না করবো ? হালকা অথচ বেশ মুখরোচক হবে। যাতে গরমে খেয়ে মজা পাওয়া যায়। লাউ যদি মুগডাল ফোড়ন দিয়ে হালকা করে রাঁধি ? ........মনে হয় ভালোই হবে। দেখা যাক!........ দেরি না করে ,লাউ রাঁধতে চললাম।যদি পারেন ,আপনারাও আমার সঙ্গেই চলুন না !ভালো লাগবে।


উপকরণ :-


  • লাউ - ১টি মাঝারি সাইজের আর কচি (খোসা ছাড়িয়ে জলে ধুয়ে নিয়ে কুচিয়ে রাখা )

  • মুগডাল -১/২ কাপ থেকে ১ কাপ ( ইচ্ছা মতন নিতে পারেন )

  • গোটা শুকনোলঙ্কা - ২টি ( একটু করে ফাটানো )

  • কাঁচালঙ্কা - ৩-৪টি ( একটু করে চেরা )

  • নুন - প্রয়োজনমতো

  • চিনি - প্রয়োজনমতো

  • সর্ষের তেল - প্রয়োজনমতো ( অল্পই ,খুব বেশি হবে না )

  • ঘি - ১ থেকে ২ চামচ


পদ্ধতি :-



গ্যাসে কড়াই চাপিয়ে প্রয়োজনমতো তেল দিলাম। তেল গরম হলে আঁচ কমিয়ে দিলাম ২টি ফাটানো শুকনোলঙ্কা আর মুগডাল। আঁচ বাড়িয়ে কমিয়ে মুগডাল ভালো করে ভাজতে লাগলাম। দিলাম ২টি তেজপাতা। মুগডাল লালচে লালচে হয়ে এলে আর মুগডাল ভাজার সুন্দর গন্ধ বের হতেই ,কড়াইতে দিয়ে দিলাম কুচানো লাউ,নুন আর চিনি। বেশি আঁচে কয়েকবার নাড়াচাড়া করে নিয়ে আঁচ কমিয়ে একটা ঢাকা দিয়ে লাউ সেদ্ধ হতে দিলাম।



কিছুক্ষন বাদে ঢাকা খুলে দেখি লাউ একেবারে মজে গিয়েছে। লাউ থেকে বেশ খানিকটা জল বেরিয়েছে। রান্না থেকে বেরোচ্ছে খুব খুব সুন্দর গন্ধ।স্বাদ দেখে নিয়ে দিলাম চেরা কাঁচালঙ্কা গুলো। আঁচ বাড়িয়ে লাউ ঘন্ট মাখো মাখো করে নিলাম। ২ চামচ ঘি দিয়ে লাউ ঘন্ট একটু নাড়াচাড়া করে নিয়েই গ্যাস বন্ধ করলাম। নিজের রান্নার গন্ধে ,নিজেরেই কেমন খিদে খিদে পাচ্ছিলো। না ...না ...একটু মজা করলাম।


দুপুরে খাবার টেবিলে লাউ -ঘন্ট খেয়েই সবাই বলে উঠলো ,দারুন স্বাদ !!! গরম ভাতে দারুন জমে গেছে ,আর একটু করে পেলে ভালো হয়। ওঃ! কি ভালো ,কি ...........ভালো ! খেয়ে সবার মন ভালো তো !আমার মন অবশ্যই খুব ভালো।


খুব ভালো থাকুন ,সুস্থ থাকুন ,খুব আনন্দে ................থাকুন।


2 views0 comments

Commentaires


bottom of page