top of page

রুই - বা - কাতলা - মাছের - রসা - কষা - ঝাল



মাছ চাই, মাছ চাই, মাছ চাই........ভাতের পাতে মাছ চাই-ই চাই। মাছ প্রিয় বাঙালিরা তো রকমারি মাছের সঙ্গে পরিচিত, তার মধ্যে রুই - কাতলার পরিচয় কি আলাদা করে কাউকে দিতে হবে?


না......না.....না.....


সব বাঙালির ঘরে ঘরে সব চাইতে পরিচিত রুই - কাতলা মাছ। গরম গরম ভাতে সেই রুই - কাতলারই এক লোভনীয়, সুস্বাদু রশা কষা ঝালের প্রস্তুতি।


উপকরণ :-


  • রুই বা কাতলা মাছের ৬ - ৭ পিস (গাদি বা পেটি হতে পারে)

  • পেঁয়াজ - ২টি (মাঝারি সাইজের)

  • টমেটো - ১টি (ছোট সাইজের)

  • কাঁচা লঙ্কা - ২টি বা ৩টি (ঝাল নিজের পছন্দ মতো)

  • ছোট এলাচ - ৩ থেকে ৪টি

  • হলুদ - ১/২ চামচ

  • লাল লঙ্কা - ১/২ চামচ

  • জিরে - ১/২ থেকে ১ চামচ

  • নূন প্রয়োজন মতো

  • চিনি - খুবই সামান্য (রান্না এ সুন্দর রঙের জন্য)

  • সর্ষের তেল - প্রয়োজন মতো


পদ্ধতি :-


প্রথমে পেঁয়াজ ২টি খোসা ছাড়িয়ে ৪ টুকরো করে, টমেটো ৪ টুকরো করে আর ২টি থেকে ৩টি কাঁচা লঙ্কা মিক্সি তে পেস্ট করে নিতে হবে।


এবার ৬ থেকে ৭ পিস্ মাছের টুকরো গুলো জল দিয়ে কয়েকবার ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। জল ঝরিয়ে প্রয়োজন মতো নূন - হলুদ মাখিয়ে রেখে দিতে হবে।


গ্যাস এ কড়াই গরম হলে সর্ষের তেল দিতে হবে। তেল গরম হলে তবেই মাছ গুলো সুন্দর করে ভেজে নিতে হবে। এখন কড়াইতে নতুন করে ৪ - ৫ চামচ সর্ষের তেল দিতে হবে। তেল গরম হলে রঙের জন্য ২ - ৪ দানা চিনি আর ৩ - ৪টি এলাচ দিয়ে মিক্সি তে রাখা পেস্ট তেলে ছেড়ে দিতে হবে। আঁচ কমিয়ে তাতে প্রয়োজন মতো নূন, হলুদ গুঁড়ো, লঙ্কা গুঁড়ো ও জিরে গুঁড়ো দিতে হবে। এবার আঁচ বাড়িয়ে কমিয়ে মিশ্রণ তা ভালো করে কষতে হবে। মশলা তে যখন জল শুকিয়ে তেল বেরিয়ে আসবে, তখন ১ থেকে ২ কাপ জল দিতে হবে।


রসা ফুটে উঠলেই মাছ গুলো দিয়ে কম আঁচ - বেশি আঁচ করে কিছুক্ষন রান্না করতে হবে। এবার রসা মাখো মাখো হলেই গ্যাস বন্ধ করে দিতে হবে। তাহলেই তৈরী হয়ে যাবে রুই - কাতলা মাছের রসা - কষা ঝাল।


গরম ভাতে খান আর তৃপ্তি পান।

যারা ধনেপাতা ভালোবাসেন, তারা মাছের ঝাল নামানোর কিছুক্ষন আগে সামান্য কয়েকটি ধনেপাতা ভালো করে কুচিয়ে রান্না তে দিন।

এই গরমে ভালো থাকুন, সাবধানে থাকুন, সুস্থ থাকুন।

101 views0 comments

Comments


bottom of page