top of page

ভিনেগারের - গন্ধে - চিকেন - কষা



চিকেন - একটি প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার। বলতে গেলে অনেক অনেক মানুষের কাছে অনেক প্রিয় একটি খাবার। ছোট্ট শিশু থেকে বয়স্করা এর বিভিন্ন রান্নার পদের সাথে পরিচিত। আসুন আমি আপনাদের এক খুব সহজ পদ্ধতি তে চিকেন রান্না শেখাই, যেটা রুটি পরোটা দিয়ে তো ভালো লাগবেই, তবে যারা ভাত ভালোবসেন, ভাতের সঙ্গেও খেতে পারেন।


উপকরণ :-


  • চিকেন - ৫০০ গ্রাম (ছোট ছোট টুকরো করে কাটা)

  • ভিনেগার - ২ টেবিল চামচ

  • টমেটো - বড় একটা (কুচানো)

  • কাঁচা লঙ্কা - ৮ থেকে ৯টি (প্রয়োজনে কম বেশি হতে পারে)

  • পেঁয়াজ - মাঝারি সাইজের ৫টি (২টি একটু বড় বড় করে কাটা আর ৩টি সরু করে কুচানো)

  • নূন - প্রয়োজন মতো

  • চিনি - খুব সামান্য (রান্না এ রঙের বাহারের জন্য)

  • হলুদ - ১/২ চা চামচ

  • আদা বাটা - ১ চামচ

  • রসুন বাটা - ১ চামচ

  • কাঁচা লঙ্কা বাটা - ৩টি


পদ্ধতি :-


চিকেন টুকরো গুলো একটা পাত্রে রেখে হালকা করে ধুয়ে নিলাম। জল ঝরিয়ে এবার ২ চামচ ভিনেগার, বড় বড় করে কাটা ২টি পেঁয়াজ, ৫ থেকে ৬টি ফাটানো কাঁচা লঙ্কা, ২ থেকে ৩ টেবিল চামচ সর্ষের তেল ও প্রয়োজন মতো নূন দিয়ে ভালো করে মেখে একটা ঢাকা দিয়ে বন্ধ করে ফ্রিজে তুলে রাখলাম।


এই মেরিনেট করা চিকেন ৫ - ৬ ঘন্টা থেকে ১০ - ১২ ঘন্টা রাখা যায়। এবার কড়াই গরম করে সর্ষের তেল দিলাম, আর তেল গরম হলে সরু করে কুচানো পেঁয়াজ দিয়ে হালকা বাদামি করে ভেজে, তাতে আদা বাটা, রসুন বাটা, কাঁচ লঙ্কা বাটা, ২ - ৪ দানা চিনি, ১/২ চামচ হলুদ দিয়ে ভালো করে কষে নিলাম।


এরপর মেরিনেট করা সমস্ত চিকেন কড়াইতে ঢেলে দিলাম। আঁচ বাড়িয়ে ভালো করে কষতে লাগলাম। যখন কষা চিকেনের জল মোটামোটি শুকিয়ে এলো, তখন একটা ঢাকা দিয়ে কম আঁচে রেখে দিলাম।


কিছুক্ষন বাদে ঢাকা খুলে আঁচ বাড়িয়ে কষে নিলাম। এরকম ভাবে কম আঁচ বেশি আঁচ করে রান্নাটি দু একবার করে নিলেই চিকেন তৈরী।


এখানে কিন্তু কোনো জল চলবে না। নূন ঝালের স্বাদ নিজে ঠিক করে নিলেই তৈরী হবে খুব স্বাদিষ্ট চিকেন। এই রান্না তা গরম গরম তো ভালো লাগেই, ফ্রিজে তুলে রেখে পরের দিন বাসী কষা চিকেন (অবশ্যই গরম করে) খেয়ে দেখুন কেমন লাগে!!!


আনন্দ করে খান, উপভোগ করুন আর খুব ভালো থাকুন।



49 views0 comments

コメント


bottom of page