top of page

গরমে - ক্লান্তি - কাটে - ঠান্ডা - ভেজা - ভাতে



চৈত - বোশেখের প্রচন্ড দাপাদাপি তে মানুষ যখন ক্লান্ত, অসহায়, কিসে আরাম পাবে ভেবে পায়ে না, ফ্যানের হওয়া ভালো লাগছে না, বারবার গায়ে জল ঢালতে হচ্ছে আর ছুটে চলেছে ঠান্ডা জল বা ঠান্ডা পানীয়র খোঁজে, তখন আমি খাওয়ার মেনু তে একটু শান্তি আনার চেষ্টা করতে পারি | প্রায় আপনাদের প্রত্যেকেরই বাড়ির প্রধান খাবার ভাত | এটা দিয়েই তৈরী হবে ঠান্ডা ভেজা ভাত | গরম কালে ভেজা ভাত খুবই উপকারী, শরীর ঠান্ডা রাখে, পেট ভালো রাখে, গরম কম লাগে, খেতে তো অবশ্যই খুব ভালো | চলুন না.....কোনো এক প্রখর গরমের দুপুরে এটাকেই মেনু করি |


উপকরণ :-


  • ভাত - ৩ থেকে ৪জনের মতো

  • গন্ধরাজ লেবু - বড় একটি (লম্বা লম্বা ৮ টুকরো করে কাটা)

  • পেঁয়াজ - মাঝারি সাইজের ৩টি (একটি খোসা ছাড়িয়ে লম্বা-লম্বি ৪ টুকরো করে কাটা আর অন্য দুটি মিহি করে কুচানো)

  • আলু - ৩টি মাঝারি সাইজের

  • নূন - আন্দাজ মতো

  • কাসুন্দি - ৬ থেকে ৮ চামচ (এটা নিজের নিজের পছন্দ মতো; নিতেও পারেন, না নিতেও পারেন)


পদ্ধতি :-


রাতে ভাত করে প্রথমে ঠান্ডা করতে হবে | তারপর একটি ডেকচি তে ভাত রেখে এমন ভাবে জল ঢালতে হবে যেন জল ভাতের লেভেল থেকে ইঞ্চি খানেক ওপরে থাকে | এবার গন্ধরাজের কাটা টুকরো গুলো, চেরা লংকার ৪ টুকরো ভাতের ওপরে জলের মধ্যে সাজিয়ে দিতে হবে |


গন্ধরাজ লেবুর পাতা পেলে ৮ - ১০টি ভালো করে ধুয়ে এর মধ্যে দিতে পারেন | সুন্দর একটা গন্ধ হয় |

এবার ভাতের পাত্রটি ঢাকা দিয়ে ফ্রিজে রেখে দিতে হবে | পরের দিন প্রথমে ৩টি আলু সেদ্ধ করে রেখে দিতে হবে | আর ৩টি পেঁয়াজের ১টি, ৪ টুকরো করে, আর বাকি ২টি খুব মিহি করে কুচিয়ে নিতে হবে | ফ্রিজ থেকে ভাতের পাত্রটি বার করে ৮টি লেবুর টুকরো ও ৮টি কাঁচা লংকার টুকরো জল থেকে তুলে নিয়ে একটি ডিশএ রেখে দিতে হবে | এবার ভেজা ভাত গুলো জল থেকে তুলে ওপর একটি পাত্রে রেখে তার মধ্যে সেদ্ধ আলু, কুচানো পেঁয়াজ, ও ৪ পিস্ অর্ধেক কাঁচা লঙ্কা ও প্রয়োজন মতো নূন দিয়ে ভালো করে মাখতে হবে | দুপুরে খাবার সময়ে মাখাটা প্রত্যেকের পাতে পাতে দিয়ে দিতে হবে (যদি কেউ চান তো ভেজা ভাতের ঠান্ডা জল নিজের পছন্দ মতো মাখা ভাতের মধ্যে নিতে পারেন) | এবার এই ভাতের সাথে প্রত্যেক পাতে পাতে অবশ্যই দিতে হবে রেখে দেওয়া ২ টুকরো গন্ধআয়াজ লেবু, ১ টুকরো অর্ধেক কাঁচা লঙ্কা ও ১ টুকরো পেঁয়াজ | এই মাখা ভাতের সঙ্গে মেনু রাখতে পারেন ৩ -৪ পিস্ পোস্তো ছিটিয়ে পটল ভাজা, কয়েক টুকরো মুচমুচে গোল গোল আলু ভাজা ও এক পিস্ কড়কড়ে মাছ ভাজা ; পছন্দ হলে সঙ্গে ১-২ চামচ কাসুন্দি রাখতে পারেন | ভাবছেন এটা তো আমরা সবাই খাই.......কিন্তু না না.......কেউ কেউ হয়তো ভুলে গেছেন | তাদের একবার মনে করিয়ে দিলাম | মৌজ করে খান, ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন |


16 views0 comments

Comentários


bottom of page